কম দামে সেরা ড্রোন কোনটি? ZLRC Beast sg906 Drone Bangla Review

কম দামে সেরা ড্রোন কোনটি? ZLRC Beast sg906 Drone Bangla Review

Price:

Read more »


ZLRC Beast Drone


কম দামে সেরা ড্রোনটি সম্পর্কে জানাবো আজকে।বর্তমানে ড্রোন উড়ানো নিয়ে ব্যাপক আগ্রহ বেড়েছে আমাদের দেশে।

 

 একসময় বাংলাদেশে ড্রোন উড়াতে হলে ৪৫ দিন আগে সরকারি অনুমতি নিতে হত।বর্তমানে ব্যাপারটা অনেক সোজা হয়ে গেছে।



বর্তমানে এখন সরকারের নতুন আইন অনুযায়ী ৫ কেজি ওজনের নিচে সব ড্রোন উড়ানো যাবে কোন অনুমতি ছাড়া।এর ফলে বাজারে ড্রোনের বেচা-কেনা ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পেয়েছে।প্রপেশনালি ড্রোনগুলোর দাম অনেক বেশি থাকায় সাধারন লোকেরা সবাই ব্যবহার করতে পারে না।



তাই এমন একটা ড্রোনের সাথে পরিচয় করিয়ে দিব যেটি খুব বাজেট প্রেন্ডলি হবে।

 

 

ZLRC Beast sg906 Drone Bangla Review


কি থাকছে এই ZLRC Beast ড্রোনে?



• প্রথমেই ক্যারি করার জন্য দারুন একটা বেগ পেয়ো যাবেন যেটা অনেক ভালো লাগবে।এই ব্যাকটা দিয়ে যেকোন জায়গায় ব্যবহার করা যাবে।এটা খুবই স্মুথ এবং অনেক সোজা। সে হিসেবে ব্যাকপ্যাকটাকে ভালো বলাই যায়।



• এটি দেখতে অনেক প্রিমিয়াম প্রিমিয়াম লাগে। তাই ভালো করেই বলা যায় এটি ভালো মানের ম্যাটেরিয়াল দিয়ে তৈরি।এটি তৈরিতে যে ধরনের পন্য ব্যবহার করা হয়েছে সেগুলো খুব ভালো মানের।পানি লাগলেও কোন সমস্যা হবে না। তাই এটিল লুক এবং ম্যাটেরিয়ালগুলো খুব ভালো মানের বলাই যায়।



• ডানা গুলো গুছিয়ে রাখা যায় এর ফলে জায়গা লাগে কম এবং ডানাগুলো সুরক্ষিত থাকে।এটিকে মোট ছয়টি ভাহে ভাগ ভাজ করা যায়।তাই আপনি চাইলে এটিকে ভাজ করে আপনারে হাতের মুঠোয় নিয়ে হাঠতে পারেন।আর ডানাগুলোর উপর পাখাও খুব সুন্দর ভাবে গুছিয়ে রাখা যায়।যেটা অনেক ভালো লাগবে আপনার। তো এর ডানা গুলো নিয়েও আপনার চিন্তা করার কোন কারন নেই 



• এখানে দরকারি সব জিনিস পেয়ে যাবেন। যেমন - চার্যার,ক্যাবল,এক্সট্রা ব্যাটারি, রিমোট কন্ট্রোলার সহ ইত্যাদি ইত্যাদি। এগুলো আপনাকে এটি ব্যবহার করা আরও সহজ করে তুলবে।আর এর সাথে যেগুলো থাকবে সেগুলো একেবারেই খারাপ না এগুলো ও আপনাকে খুশি করবে।তাই এইগুলো ও ভালো আশা করজ যায়।



• রিমোটটি দারুন দেখতে প্রিমিয়াম লুকিং যাকে বলে।রিমোটে পেয়ে যাবেন মোবাইল হোল্ডার যেখানে সমস্ত ডেটা বা ভিডিও দেখা যাবে।মোবাইলকে শক্ত করে ধরে রাখতে পারে।সাথে এর জয়াস্টিকগুলো খুব ভালো মানের।পাউয়ার বাটন রয়েছে মাঝখানে এবং পেন্সিল ব্যাটারি ব্যবহার করতে পারেন রিমোটে।আর চারটা মিডিয়াম সাইজ পেন্সিল ব্যাটারি ব্যবহার করা যায়।আর আপনার সুবিধার্তে আপনি চাইলে যেকোনো জায়গায় জাওয়ার আগে কিছু এক্সট্রা পেন্সিল ব্যাটারি নিয়ে নিতে পারেন ব্যাকআপ হিসেবে।


 

• এটি অনেক হালকা এটির ওজন প্রায় ৫০০ গ্রামের কাছাকাছি।কিন্তু দূর থেকে দেখলে মনে হয় অনেক ভারি।তাই এটি নিয়ে ও তেমন ভাবনায় পড়তে হবে না।প্রথমেই এটিকে দেখে ১.৫ কেজি মনে হলেও এর ওজন এতটা কম হবে ভাবতে পারি নি।



• এটার ব্যবহার করার সময় আওয়াজ খুব কম আসে। তাই ব্যবহার করার সময় জোরে জোরে আওয়াজ আশাটাও কমে যাবে।তাই এটা ওড়াতে বেশ স্বাচ্ছন্দ ফিল করবেন।তাই এটা নিয়েও চিন্তার কারন নেই।




ZLRC Beast ড্রোনের ক্যামেরা কেমন?




ড্রোনের ক্যামেরা ছাড়া আর আছে টা কি। ক্যামোরা ছাড়া এটি একটি খেলনা। তো তাই ক্যামেরা ব্যবহার করা খুব গুরুত্বপূর্ণ। 



• এর ক্যামেরায় রয়েছে ১২ মেগা পিক্সেল এবং এটি ৬০ ডিগ্রি এঙ্গেলে ঘুরাতে পারেন। এটি দ্বারা ২ k রেজুলেশন এ ভিডিও তরা যায়।তো তাই এটা একটি দূর্বল মনে হয়।এটি আপনাকে একটু হতাশ করতে পারে।



• কারন ড্রোন উপর থেকে ভিডিও করা হয় তাই নিচের সমস্ত জিনিস ভালো করে দেখা যাওয়া উচিত।নিজের রেজুলেশন এর খুব বেশি প্রয়োজন হয়ে থাকে।ড্রোন যখন উপরে তুলবে তখন সব গুলো ডিটেইলস দরা উচিত।



• এর ফ্রেম রেট মাত্র ২০ fbs। তাই ভিডিও অতটা স্মুত হবে না।তো সব মিলিয়ে এর ক্যমেরেটা কিছুটা হতাশ করেছে।ভিডিও কোয়ালিটি কিছুটা দুর্বল মনে হবে।




ZLRC Beast কিভাবে ব্যবহার করতে হয়?



ড্রোন ব্যবহার করার আগে জেনে নিতে হবে এতে কি কি ফিচার রয়েছে।তাই এই গুলো ব্যবহার করা জানাটা খুব দরকার।



ড্রোনের ফিচার -



• এটির রিমোটে মোবাইল ব্যবহার করে সমস্ত বিডিও দেখা যায়।আর আপনি এটা চাইলে একটি এ্যাপ দ্বারা ড্রোনটি কনট্রোল করা যাবে।এ্যাপটির নাম হল hfun pro ।এটি দ্বারা সম্পূর্ন ড্রোনটি নিয়ন্ত্রণ এবং এর ডাটাগুলো সংগ্রহ আরও সহজ হয়ে উঠবে। এ্যাপটির এন্টারপেস ইউচার প্রেন্ডলি এবং ভালো ছিল যেটি আপনার কাছে আরামদায়ক হবে।



• এতে আরো একটা প্রিমিয়াম ফিচার রয়েছে যেটা হলো Follow Me। এই পিচারটা হল দূর থেকে কোন একটা জিনিসকে তার্গেট করে রাখলে ড্রোন আস্তে আস্তে সেটি দারুন ভাবে ভিডিও করবে।এতে করে আপনি আপনার নির্দিষ্ট কোন জিনিস সম্পূর্ন ডিটেইলস দরা পড়বে এবং আপনার ভিডিও কোয়ালিটি দারুণ হয়ে উঠবে।এটি মন ভালো করার মতো একটি পিচার। 



• এরপর আরও একটা প্রিমিয়াম ফিচারের কথা বলব যেটা হল One touch Home। এটি অনেক অনেক ভালো একটি পিচার।এটির মাধ্যমে আপনার ড্রোন যেখানেই থাকুক না কেন এক ক্লিকে আপনার ড্রোন আগের জায়গায় ফিরে আসবে।ধরুন ড্রোন নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না বা ড্রোন দ্বারা আপনি যেটা দেখাতে চাইছেন সেটা হচ্ছে না এই বাটনে শুধুমাত্র এক ক্লিকে আবার আগের জায়গায় ফিরে আসবে।এটি অনেক প্রিমিয়াম এবং চমৎকার একটি ফিচার। 



এইসব পিচার দামি দামি ড্রোনগুলোতে ব্যবহার করা যায়।যোগুলোর মূল্য ৫০,০০০ থেকে ১,০০০০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।আর এখানে এক সস্তা ড্রোনে এই সমস্ত ফিচার আসলেই অনেক কুল লাগে।



ZLRC BEAST ড্রোনের খারাপ দিক



সবকিছুরই ভালো থারাপ দিক রয়েছে। তেমনে এটির মাঝেও অনেক খারাপ দিক রয়েছে।যেগুরো আপনাকে হতাশ করতে পারে।



• এর ভিডিও কিন্তু 4k সাপোর্ট করে না।আপনি কি বুঝতে পারছেন এই ২০২০ সালে এসে 4k পাচ্ছেন না বর্তমানে 4k অনেক কমন হয়ে গেছে। যেখানে বর্তমানে 8k পাওয়া যায় সেখানে এটি সত্যি বেমানান।এটি আপনাকে হতাশ করবে।তাই যারা একটু ভালো কোয়ালিটি র ভিডিও সুট করতে চান তাদের জন্য একটু মাইনাস পয়েন্ট হয়ে গেল যদিওবা একেবারে খারাপ বিডিও আসবে না।ড্রোন অনেক উপর থেকে ছবি তুলে তাই এটির সম্পূর্ন ভালো দেখা নাও যেতে পারে। 




• এর ব্যাটারি কেপাসিটি অনেক কম বলে মনে হয়োছে। তার উপর এটি সম্পূর্ন চার্চ হতে ৫ ঘন্টা সময় লাগে। এটির ব্যাটারি ৮০০ mAh।এটা চার্ছ হওয়ার সময়টা অনেক বেশি লাগে। তাই এটি এাটু বিরক্তিকর মনে হতে পারে।যদিওবা ব্যাটারি ব্যাকআপ অনেক ভালো ছিল।

• সফটওয়্যার থাকার কারনে সামান্য কিছু লেক দেখা গেছে এটিতে। যদিওবা হয়ত এ্যাপের পরবর্তী আপডেটে এটি ঠিক হয়ে যাবে আশা করি।এই অ্যাপটা নিয়ে কথা বলা ঠিক হবে না কারন এটা ড্রোনের কোন অংশ না। আবার আপনার মোবাইল যদি ভালো মানের হয়ে থাকে এই সমস্যায় নাও পড়তে পারেন।




ZLRC Beast ড্রোনটি কাদের জন্য?




প্রথমেই বলে নিই এটা অনেক কম বাজেটের ড্রোন তাই ভালো কিছু আশা করা যায় না।তবে যারা ড্রোন ভালোবাসে কিন্তু বেশি টাকার কারনে কিনতে পারেন না তাদের জন্য হতে পারে এটি আদর্শ হতে পারে।মোট কথা এটা বিগেনারদের জন্যই তৈরি।


আপনার ড্রোন কিনার ইচ্ছে থেকে যদি টাকা কম থাকে তাহলে এটি হতে পারে ভালো এাটি অফশন।




ZLRC Beast Drone এর দাম কত?




এটির দাম অন্যান্য ড্রোনের তুলনায় এটির দাম অনেক কম।এটির বর্তমান বাজার মূল্য ২০,০০০ টাকা।যেটি একটি মোবাইলের মতোই দাম। তো এই বাজেটে আমার মনে হয় না ঠকবেন এটি কিনলে।


0 Reviews

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *