Check Now

How to increase YouTube video views


বর্তমানে ইউটিউবারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সমস্যাটি হল,ইউটিউব এর ভিডিও ভিউ হয় না।সবার মনে একটি প্রশ্ন থাকে কিভাবে ইউটিউবের ভিডিওর ভিউ বাড়ানো যায়?

 অনেকেরই দেখা যাচ্ছে খুবই ভাল ভাল কনটেন্ট তৈরি করে কিন্তু সেগুলো দেখার মত তেমন কেউ থাকেনা । দেখা যায় সেগুলো তে 100/200/300 পর্যন্ত ভিউ হয়ে থাকে । এমনটা কেন হচ্ছে? কি করলে ভিউ বাড়বে? এবং কিভাবে একজন সফল ইউটিউবার হওয়া যায়? সমস্ত প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন আশা করি।

আপনার যদি সাবস্ক্রাইবার শূন্য হয়ে থাকে আবার আপনার সাবস্ক্রাইবার যদি 1000/2000/10000/20000 হয়ে থাকে তাহলেও এই  আর্টিকেলটি আপনার জন্যই প্রয়োজন । এখানে আপনাদেরকে এমন কিছু টিপস শেয়ার করবো যেগুলো আপনার ভিডিওতে প্রদান করতে পারলে আপনার ইউটিউব এর ভিউ হবে আগের থেকে 10 গুণ বেশি । শুধু লেখাগুলো মনোযোগ দিয়ে বুঝে নেবেন।

ইউটিউবে পাওয়ার ক্ষেত্রে অনেক কিছুই ফ্যাক্টর করে । তবে সেই সমস্ত নিয়মকানুন থেকে আপনার ভিডিওটি কিভাবে সকলে দেখতে পারে এবং আপনি ভালো পরিমাণে আর্নিং করতে পারেন সে সম্পর্কে জানতে পারবেন এখানে ,যদি আপনার ইউটিউব চ্যানেলে ভালো ভিউ না আসে আপনি ভালো ভিডিও তৈরি করা সত্ত্বেও তাহলে আপনার সমস্ত পরিশ্রম বৃথা যাবে । আপনার এত কষ্ট করে বানানো ইউটিউব চ্যানেলটাকে বুস্ট করতে সমস্ত টিপস মেনে চলার চেষ্টা করেন।

চলুন দেখে নিই : 

কিভাবে ইউটিউবের ভিডিও ভিউ বাড়ানো যায়?


1.  আপনার ভিডিওটিকে সার্চ ফ্রেন্ডলি করে তৈরি করুন

  • ভিডিও এমন টপিকের উপর নির্মাণ করেন যেই টপিক বর্তমানে খুব ভালো চলছে 

 (ভিডিও টপিক বেছে নেওয়ার পর আপনি যেকোন জায়গা থেকে ভালো কিছু কিওয়ার্ড বেছে নিতে পারেন)

  • আপনি চাইলেও ইউটিউব  ছাড়াও গুগোল ও বিং এর মত সার্চ ইঞ্জিনগুলো দেখে নিতে পারেন যেখানে প্রতিদিন কি সার্চ হচ্ছে

(দেখার জন্য অনলাইনে বিভিন্ন ফ্রী টুলস দেওয়া আছে সেগুলো ব্যবহার করার চেষ্টা করুন)

  • বিভিন্ন টুলস ব্যবহার করতে পারেন কিওয়ার্ড বের করার জন্য   এবং কনটেন্ট আইডিয়ার জন্য  ব্যবহার করতে পারেন।
  •  আপনার নিজের একটা কমিউনিটি করে তুলুন এবং সেই কমিউনিটি থেকে কিছু প্রশ্ন কালেক্ট করুন সেই গুলোর উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন।



2.  ভিডিওটি কি সে সম্পর্কে জানাতে একটি ভালো  থামনেইল তৈরি করুন

  • ভালো একটি ফন্ট ব্যবহার করুন

 (অনলাইনে প্রচুর বাংলা ও ইংরেজি ভালোমানের ফ্রন্ট রয়েছে সেগুলো থেকে আপনার থামনেল এর সাথে মানানসই কিছু ফন্ট ব্যবহার করেন)

বাংলা ফ্রন্ট 

ইংরেজি ফ্রন্ট 

  • ন্যূনতম কিছু কথা লিখুন

 ( আপনার ভিডিওটি না দেখার আগেই যেন অডিয়েন্স বুঝে যায় এটি তথ্যবহুল সেটি জানার জন্য নূন্যতম কিছু টেক্সট লিখতে পারেন)

  • পড়ার মত করে লিখুন

( সে গুলোকে পড়ার মত করে লিখুন যাতে সহজে পড়া যায় আর কখনোই ভিডিও একরকম এবং থামনেল আরেকটা জিনিস দেখানোর চেষ্টা করবেন না)

  • আপনার ব্র্যান্ড বা চ্যানেল নেম বা আপনার আইডির নীতি ভালোভাবে ফুটিয়ে তোলেন


3.  ভিডিও এসইও ফ্রেন্ডলি করে তৈরি করুন


* (টেকনিকেল)

  •   ভিডিওর ফাইল নামে অবশ্যই কিওয়ার্ড রাখুন

 আপনি যখন ভিডিও তৈরি করবেন এবং ভিডিও তৈরি করে ভিডিওর ফাইল নেম দিতে যাবেন তখন সেখানে সুন্দর করে আপনার যে কিবোর্ডটি রয়েছে সেটির প্রবেশ করিয়ে দিতে পারেন এবং এতে করে মারাত্মক একটা এসি হয়ে যাবে

  • কিওয়ার্ড ভিডিও টাইটেল এ ব্যবহার করুন

 ( যে কেউ একটি ফাইল নামে দিয়েছেন সেই কিওয়ার্ড দিয়েই আপনারা  ভিডিও টাইটেল তৈরি করুন )

*ট্যাগ ও ডেসক্রিপশন

  • ভালো করে অপটিমাইজ করে ডেসক্রিপশন দেবেন

( ডেসক্রিপশন থেকে অনেকটুকু ইনফর্মেশন ইনফরমেটিভ রাখার চেষ্টা করবেন। সেখানে বিভিন্ন প্রকারের লিঙ্ক এড করতে পারেন। )

  • আপনার পছন্দের যেকোনো ভালো কিছু ট্যাগ ব্যবহার করুন ( এর জন্য Ubersuggest এর মত chrome-extension ব্যবহার করতে পারেন)

 ( ইন্টারনেটে অনেক  ট্যাগ জেনারেটর রয়েছে সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন )

  •  টপিক অনুযায়ী 500 ওয়ার্ড এর ভিতর কয়েকটা মেইন কি ওয়ার্ড বা ট্যাগ ডেসক্রিপশনে দিতে পারেন

*প্লেলিস্ট বা ক্যাটাগরি তৈরি করুন

  • আপনার চ্যানেলের নিস অনুযায়ী কয়েকটি ভালো টপিক বেছে নিন যে গুলোতে নিয়মিত ভিডিও করতে পারেন
  • আপনার একটু সহযোগিতা হতে পারে গুগলের তথ্য অনুযায়ী সেরা চারটি ক্যাটাগরির মধ্যে রয়েছে comedy, music,Entertainment এবং How to (এগুলো ব্যবহার করলে বেশি সফল হওয়া যায়)

*SRT ফাইল অ্যাড করুন

  • একটি এসআরপি ফাইল সাবটাইটেল এবংক্যাপশন বন্ধ করার জন্য

*End Screen  এখানে যা ব্যবহার করতে হবে

  • আপনার কোন সোশ্যাল মিডিয়া বা ওয়েবসাইটের লিঙ্ক দিয়ে দিতে পারেন
  • সাবস্ক্রাইব এর জন্য বলতে পারেন
  • আরেকটি ভিডিও সাজেস্ট করতে পারেন
  • আরেকটি প্লেলিস্ট সাজেস্ট করতে পারেন
  • আপনাকে আপনার অডিয়েন্স ধরে রাখতে হবে অর্থাৎ আপনার ভিডিও একটা শেষ হওয়া মাত্রই যেন সে অন্য আরেকটি  ভিডিওতে চলে যায় এবং সেটি যেন আপনার ভিডিও হয়ে থাকে।


4.  ভিডিও তৈরি করার জন্য কিছু টিপস এন্ড ট্রিকস


  • 5 মিনিটের বেশি এবং 15 মিনিটের কম ভিডিও বানান

বেশি বড় ভিডিও তৈরি করা মানেই সেটি আপনার অডিয়েন্সের কাছে এক প্রকার নেগেটিভ ইনফ্যাক্ট  ফেলে দেওয়া। তাই বেশী লম্বা ভিডিও তৈরি করতে চাইবেন না তবে আবার একেবারে ছোট ভিডিও তৈরি করবেন না । অবশ্যই আপনার ভিডিওটি  5 মিনিটের উপর রাখুন তাহলে এসইউ করতে সুবিধা হবে।

  • একটি সময় সিডিউল তৈরি করে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করুন

 কখনোই একবার ভিডিও তৈরি করে, আবার ভিডিও তৈরি করা বন্ধ করে দেবেন না। তাহলে আপনার ইউটিউব চ্যানেল  ভিউ অনেকটুকু লো হয়ে যেতে পারে। আপনাকে নিয়মিত শিডিউল তৈরি করে ভিডিও আপলোড করে যেতে হবে । যদি আপনি ইউটিউবে সফল হতে চান, এটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার।

  • ভিডিও কোয়ালিটি ভালো রাখুন

 ভিডিও কোয়ালিটি অবশ্যই ভালো রাখুন আপনি যদি বাইরে শুট করেন তাহলে 4K রাখুন আবার যদি ইনডোরে ভিডিও করেন HD তে রাখার চেষ্টা করবেন।

  • আপনার ইউটিউব চ্যানেল যে নিস নিয়ে বানিয়েছেন সেটি সম্পর্কেই শুধু ভিডিও করুন

 কখনোই টপিকের বাইরে ভিডিও বানাবেন না হয়তো দেখা গেলো আপনি একটি  প্রডাক্ট রিভিউ ভিডিও তৈরি করে পর  তৈরি করলেন ওষুধ সম্পর্কে এইরকম কাজ কখনোই করবেন না


5.  অল্টারনেটিভ প্লাটফর্মে পোস্ট করতে পারেন আপনার ভিডিও সম্পর্কে


  • ফেইসবুক
  • টুইটার
  • ইনস্টাগ্রাম
  • স্ন্যাপচ্যাট স্টোরিজ
  • ওয়েবসাইট
  • ইত্যাদি

6.  ভিডিও প্রমোট করা

  • আপনার ভিডিওটি আপলোড করার 24 ঘন্টার ভিতরে ভিডিওটির প্রমোশন করে ফেলবেন যদি প্রয়োজন হয় এর বেশি সময় নিবেন না।
  • ভিডিওটি ইউটিউবে 24 ঘন্টা সময় লাগতে পারে আপনার যা প্রয়োজনীয় কাজ রয়েছে 24 ঘন্টার ভিতরেই করে ফেলুন।
  • আপনি যত  সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও শেয়ার করবেন সেটি 24 ঘন্টার ভিতরে করে ফেলুন কারণ এরপর  সেটি আর ইউনিক  থাকবে না।


Post a Comment

অপেক্ষাকৃত নতুন পুরনো